নরসিংদীর রায়পুরায় দুই দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আজহার মিয়া (৪৫) নামে একজন নিহত হয়েছে। এসময় অন্তত ৫ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। 

রোববার ভোরে উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নের গৌরীপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রায়পুরা থানার এসআই রাকিবুল হালিম।

নিহত আজহার মিয়া গৌরিপুর গ্রামের মৃত আয়দার আলী মিয়ার ছেলে। তিনি মালবাহী নৌকায় মাঝির কাজ করতেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে রায়পুরা থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) আতাউর রহমান বলেন,আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরেই মুছাপুর গ্রামের পাঠান বাড়ি ও মোল্লা বাড়ির মধ্যে দ্বন্দ চলে আসছে। আগেও দুগ্রপের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ঘ, হামলা-ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। 

গত শনিবার কথা কাটাকাটির জেরে রোববার ভোররাতে এক দল অন্য দলের বাড়িতে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। হামলায় রোববার ভোরে পাঠান বাড়ি সমর্থক আজহার নিহত হয়। এসময় অন্তত ৫ জন আহত হয়। 

মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘তাদের দ্বন্দ্ব দীর্ঘদিনের। ২ দিন আগেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল। গ্রামবাসীর সংঘর্ষে ১ জন মারা গেছেন।’