সহপাঠীকে মারধরের প্রতিবাদে আন্দোলনে নেমেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা। সোমবার (২৮ মার্চ) দুপুর দেড়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জিরো পয়েন্টের মূলফটকে তালা দিয়ে অবস্থান নেন তারা।

গত রোববার (২৭ মার্চ) আইন বিভাগের ২০২০-২০২১ ব্যাচের শিক্ষার্থী কফিল উদ্দিন সামিকে মারধর করে শাখা ছাত্রলীগের উপগ্রুপ সিক্সটি নাইন। এ ঘটনার প্রতিবাদে আন্দোলন করেছেন তার সহপাঠী ও আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

এ সময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা জানান, ক্যাম্পাসে ছাত্রদের রক্তাক্ত করার অধিকার কারও নেই। সহপাঠীকে হাসপাতালে রেখে আমরা ক্লাস করব, এ হতে পারে না। আমাদের সহপাঠীকে আহত করার বিচার চাই। মেডিকেল সেন্টারের সামনে সিসি ক্যামেরা আছে, অভিযুক্তকে খুব সহজেই শনাক্ত করতে পারে প্রশাসন। তাদের বিচারের আওতায় আনা হোক।

পরে দুপুর ২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন সহকারী প্রক্টরদের আশ্বাসে প্রধানফটক খুলে দেয় আন্দোলনকারীরা। এরআগে দুপুর সাড়ে ১২টায় প্রক্টর অফিসে লিখিত অভিযোগ জানান কফিল উদ্দিন সামির বাবা মোহাম্মদ আবুল কাসেম। তিনি বলেন, ‘আমি প্রক্টর অফিসে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছি। ওনারা বলছেন ব্যবস্থা করবে। এর আগে আমি চিকিৎসা খরচ চাইছিলাম। আমাকে বলছে আগে অভিযোগ জানাইতে।’

এর আগে গত রোববার (২৭ মার্চ) কফিল উদ্দিন সামিকে মারধরের সময় রডের আঘাতে মাথা ফেটে যায় তার। আহত শিক্ষার্থী বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।