সমকাল কোনো দল বা ঘরানার পক্ষপাতিত্ব করে না। মানুষের অধিকারের পক্ষে কথা বলে সমকাল। সমকালের পক্ষপাতিত্ব গণতন্ত্র, নারীর অধিকার, মুক্তিযুদ্ধ ও উন্নয়নের প্রতি। যেখানেই দুর্নীতি-অনিয়ম, সেখানেই সমকাল অনুসন্ধান চালায়।

সোমবার রাজশাহী নগরীর গ্র্যান্ড রিভারভিউ হোটেলে সমকালের রাজশাহী বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় অতিথিরা এসব কথা বলেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন সমকালের উপদেষ্টা সম্পাদক আবু সাঈদ খান।

রাজশাহী ব্যুরোপ্রধান সৌরভ হাবিবের সঞ্চালনায় সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন সমকালের সহকারী সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম আবেদ, মফস্বল সম্পাদক মো. মনিরুল ইসলাম, সার্কুলেশন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক মো. হারুনুর রশিদ, বগুড়া ব্যুরোপ্রধান মোহন আখন্দসহ বিভাগের জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধিরা।

প্রতিনিধি সভায় উপস্থিত সাংবাদিকরা

সভায় সমকালের উপদেষ্টা সম্পাদক আবু সাঈদ খান বলেন, আমাদের কোনো ঘরানা নেই। আমরা কোনো পক্ষে নই। আমাদের পক্ষপাত মুক্তিযুদ্ধের প্রতি, গণতন্ত্রের প্রতি, উন্নয়নের প্রতি, নারীর অধিকারের প্রতি, মানবাধিকারের প্রতি। গণতান্ত্রিক লড়াইকে এগিয়ে নিয়ে যেতে কাজ করে সমকাল। সব দলের ভালো কাজগুলো তুলে ধরে এবং ভুলগুলোর সমালোচনা করে। যেখানে অনিয়ম সেখানেই সমকাল অনুসন্ধান চালায়। সব সময় নেতিবাচক সংবাদ নয়; ইতিবাচক সংবাদও প্রকাশ করে সমকাল।

মফস্বল সম্পাদক মনিরুল ইসলাম বলেন, সমকালকে ঢেলে সাজাতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সবার হাতে দিনের শুরুতে পত্রিকা পৌঁছে দিতে কাজ চলছে। সভায় তিনি সংবাদের মান বৃদ্ধি এবং নতুন নতুন সংবাদ লেখার নানা দিক তুলে ধরে প্রতিনিধিদের বিভিন্ন পরামর্শ দেন।

সুহৃদ সমাবেশের সঙ্গে উপদেষ্টা সম্পাদক

বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা শেষে সমকালের ঊর্ধ্বতন কর্মকতারা সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করেন। এ আলোচনায় উপদেষ্টা সম্পাদক আবু সাঈদ খান, সহকারী সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম আবেদ, রাজশাহী ব্যুরোপ্রধান সৌরভ হাবিব, রাজশাহী জেলা সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি ও রাজশাহী কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ অধ্যাপক হবিবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী কলেজের শিক্ষক লিটন সরকার পলাশ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সুহৃদের সভাপতি আরিফুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক লিখন আহমেদ, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ সুহৃদের সভাপতি নিশাত তাসনীম মৌ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।