নওগাঁয় পা দিয়ে মাড়িয়ে, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে লাচ্ছা সেমাই তৈরির প্রমাণ মিলেছে। এ ছাড়া খোলা পরিবেশে সেগুলো ভাজা এবং ময়লাযুক্ত ময়দা ব্যবহার করায় দুই কারখানার মালিককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার সকাল ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত নওগাঁ সদর উপজেলার আনন্দনগর ও আরজি নওগাঁয় অভিযান পরিচালনা করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এর সহকারী পরিচালক মো. শামীম হোসেন। তাকে সহযোগিতা করেন নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তা চিন্ময় প্রামাণিক এবং নওগাঁ পুলিশ লাইনসের একটি টিম।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. শামীম হোসেন জানান, ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী অতি মুনাফার লোভে পা দিয়ে মাড়িয়ে, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে সেমাই তৈরি করছে- এমন অভিযোগের ভিত্তিতে নওগাঁ নিরাপদ খাদ্য কর্মকর্তার সহযোগিতায় নওগাঁ সদর উপজেলার আনন্দনগর ও আরজি নওগাঁ এলাকায় কিছু অবৈধ সেমাই কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেছি। অভিযানকালে কারখানাগুলোতে অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে সেমাই উৎপাদন, বাজারজাত করার অপরাধে দুই সেমাই কারখানার মালিককে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জনস্বার্থ রক্ষায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।