কুমিল্লায় লালমাই পাহাড় সংলগ্ন এলাকার একটি বিল থেকে হাত-পা মুখ বাঁধা অবস্থায় ফারজানা আক্তার (২৮) নামের এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জেলার আদর্শ সদর উপজেলার কালিরবাজার ইউনিয়নের মস্তফাপুর (কাছার) এলাকার বিল থেকে ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

ফারজানা অলিপুর গ্রামের ইকবাল হোসেনের স্ত্রী এবং একই উপজেলার আলেখারচর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে।

স্থানীয়রা জানায়, ফারজানার স্বামী ইকবাল মাদকাসক্ত। অটোবাইক চুরির মামলায় তিনি কারাগারে ছিলেন। গত ১৯ এপ্রিল জামিনে মুক্তি পেয়ে বাড়িতে আসেন। গত শনিবার বিকেলে ইকবাল তার স্ত্রীকে বাবার বাড়ি থেকে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসেন। রোববার সকাল ৯টায় ফারজানার স্বামী তার মামি শাশুড়িকে ফোন করে জানান, ফারজানাকে কে বা কারা হত্যা করে ধান ক্ষেতে ফেলে রেখেছে। পরে ফারজানার পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি পুলিশে জানানো হয়।

ঘটনাস্থল ঘুরে এসে কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সোহান সরকার সমকালকে বলেন, শনিবার রাতে ওই গৃহবধূকে তার স্বামী হত্যা করে মরদেহ বাড়ির অদূরে ফেলে রাখে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ফারজানার মাথা ভারী কিছুর আঘাতে থেতলানো এবং হাত-পা মুখ বাঁধা ছিল। ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক আছে। তার স্বামীকে আটক করতে পারলেই হত্যার রহস্যের পুরো জট খুলতে পারে।

তিনি আরও বলেন, ফারজানার স্বামী ইকবালের বিরুদ্ধে চুরিসহ বিভিন্ন অপরাধে থানায় ৩/৪টি মামলা রয়েছে। তাকে আটক করতে অভিযান চলছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা করার প্রস্তুতি চলছে।