ময়মনসিংহের নান্দাইলে এক নারী ফুটবলারকে (১৭) ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে ওয়াহিদুল আলম ফকির ফয়সাল (৩৬) নামে ছাত্রলীগের এক সাবেক নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে গাজীপুর জেলার গাছা থানার ছয়দানা হাজীপুকুর পাড়ে অবস্থিত একটি বাসা থেকে ফয়সালকে গ্রেপ্তার করে ময়মনসিংহের নান্দাইল মডেল থানা-পুলিশের একটি দল।

গ্রেপ্তার ওয়াহিদুল আলম ফকির ওরফে ফয়সাল নান্দাইল ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি পৌর শহরের পাছপাড়া গ্রামের লাল মিয়া ফকিরের ছেলে।

নান্দাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আকন্দ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, ওই নারী ফুটবলার বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টে নান্দাইল উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় নিয়মিত অংশ নিয়ে বেশ সুনাম অর্জন করেছেন। নির্যাতিত হওয়ার পর থেকে তিনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন। এমনকি বেশ কয়েকবার আত্মহত্যা করারও চেষ্টা করেন তিনি।

পরবর্তীতে কিছুটা স্বাভাবিক হয়ে গত সোমবার অভিভাবককে সঙ্গে নিয়ে থানায় অভিযোগ জমা দেন ওই নারী ফুটবলার। তাঁর অভিযোগটিকে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হিসেবে গ্রহণ করে পুলিশ। তবে আসামি গ্রেপ্তারের সুবিধার্থে বিষয়টি গোপন রাখেন তারা।

মামলার বিবরণে বাদী উল্লেখ করেন, তিনি নান্দাইল সদরের একটি কলেজে দ্বাদশ শ্রেণিতে অধ্যয়ন করছেন। ছাত্রলীগের নেতা ওয়াহিদুল ২২ এপ্রিল ওই নারী ফুটবলারকে মুঠোফোনে কল করে একটি উপবৃত্তির ফরমে স্বাক্ষর দিয়ে যেতে বলেন। ওই নারী ওয়াহিদুলের কথা বিশ্বাস করে তার নিজ কলেজে যান। সেখানে যাওয়ার পর তাকে ওয়াহিদুল একটি পুরোনো ভবনের পেছন দিকের একটি নির্জন স্থানে নিয়ে যান। সেখানে নিয়ে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। এ সময় তিনি চিৎকার করলে তাঁকে ছেড়ে দিয়ে চলে যান ওয়াহিদুল।

নান্দাইল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, গাজীপুরের গাছা থানার এলাকা থেকে নান্দাইল থানা-পুলিশের একটি দল ওয়াহিদুলকে গ্রেপ্তার করেছে। তাকে নান্দাইল থানায় নিয়ে আসা হচ্ছে।