বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, সরকারি অব্যবস্থাপনার কারণে দ্রব্যমূল্য সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। সাধারণ মানুষ আজ না খেয়ে, অর্ধাহারে-অনাহারে জীবনযাপন করছে। আর ক্ষমতাসীন অবৈধ সরকার আছে লুটপাট নিয়ে। জনগণের পকেট কেটে তারা বিদেশে টাকার পাহাড় গড়ছে।

শুক্রবার নয়পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় অর্পণ বাংলাদেশ সংগঠনের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগের আশীর্বাদে দেশের একটি অংশ কোটি কোটি টাকার মালিক হয়েছে। আর একটি বড় অংশ খেতে পারছে না। একটি অংশকে আর্থিকভাবে আরও সুবিধা দেওয়ার জন্য, লুটপাট করার জন্য দ্রব্যমূল্য বাড়ানো হয়েছে। এক সয়াবিন তেল থেকে কয়েক হাজার কোটি টাকা তারা লুটপাট করেছে। এটা লুটেরা সরকার। এই সরকার আরও ক্ষমতায় থাকলে দেশের অস্তিত্ব বিলীন হয়ে যাবে। তাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই সরকারকে হটানোর আন্দোলন করতে হবে।

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি বিথীকা বিনতে হোসাইনের সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূইয়া জুয়েল, ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল ইসলাম মজনু ও ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ।