বরিশালের গৌরনদীতে ছাত্রলীগের এক নেতার পায়ের রগ কেটে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে একই সংগঠনের অপর এক নেতার বিরুদ্ধে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধের জেরে ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে ওই হামলা চালানো হয়েছে। শনিবার রাতে উপজেলার চাঁদশী কুমারভাঙ্গা সেতুর ওপর এ ঘটনা ঘটে। 

আহত ওই ছাত্রলীগ কর্মীর নাম ফাহিম সরদার (২১)। তিনি চাঁদশী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সদস্য ও মাহিলাড়া ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র। তিনি শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, চাঁদশী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সদস্য ও মাহিলাড়া ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্র ফাহিম সরদারের সঙ্গে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে একই ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সদস্য সাইফুল ইসলামের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। ওই বিরোধের জের ধরে শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ফাহিম সরদার তার কয়েকজন সহযোগীকে নিয়ে চাঁদশী কুমারভাঙ্গা সেতুর কাছে অবস্থার করার সময় প্রতিপক্ষ সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে তার ৮/১০ জন সহযোগী ধারালো অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে ফাহিম সরদারের ওপর হামলা চালায়। হামলাকারীরা ফাহিমকে পিটিয়ে এবং কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। এছাড়া ধারালো অস্ত্রের আঘাতে ফাহিমের বাম পায়ের রগ বিচ্ছিন্ন করে।

তবে অভিযুক্ত সাইফুল ইসলাম গৌরনদী থানা হাজতে থাকা অবস্থায় সাংবাদিকদের বলেন, তিনি হামলার সঙ্গে জড়িত নন। ইচ্ছাকৃতভাবে তাকে মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে। 

এ ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতার বড় ভাই রাব্বি সরদার বাদী হয়ে ১২ জন ছাত্রলীগ ও যুবলীগ নেতাকর্মীকে আসামি করে আজ রোববার গৌরনদী মডেল থানায় মামলা করেছেন। ওই দিনই পুলিশ মামলার প্রধান আসামি ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলামকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে।

রাব্বি সরদার অভিযোগ করেন, ফাহিমকে হত্যার উদ্দেশ্যে সাইফুলের নেতৃত্বে হামলা চালানো হয়। গুরুতর অবস্থায় ফাহিমকে রোববার সন্ধ্যায় গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে বরিশাল শেরবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। 

গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আফজাল হোসেন বলেন, ফাহিমের ওপর হামলার ঘটনায় তার বড় ভাই মো. রাব্বি সরদার বাদী হয়ে মামলা করেছেন। ওই মামলার প্রধান আসামি সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে রোববার বরিশাল চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়েছে। 

গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসক ডা. দেওয়ান আব্দুস সালাম রোববার বিকেলে জানান, ফাহিম সরদারের বাম পায়ের প্রধান রগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এ কারণে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফাহিমকে শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

শেবাচিম হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. নাজমুল হোসেন জানান, ফাহিমের বাম পায়ে অপারেশন করতে হবে। 

এদিকে গৌরনদী উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান দাবি করেছেন, 'বর্তমানে রাব্বি সরদার ও সাইফুল ইসলাম ছাত্রলীগের কোন পদ পদবীতে নেই।'