মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার কৌলায় একটি ঘরের সিঁধ কেটে ৩ বছরের শিশুকে চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শিশুটির মা লিজা আক্তারকে থানায় নিয়ে পুলিশ হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে রাউৎগাঁও ইউনিয়নের কৌলা গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

এলাকাবাসী জানান, রাউৎগাঁও ইউনিয়নের কৌলা গ্রামের আকবর মিয়ার মেয়ে লিজা আক্তারের সঙ্গে বিয়ে হয় একই উপজেলার টিলাগাঁও ইউনিয়নের বাঘরিয়াল গ্রামের দুবাইপ্রবাসী মর্তুজ মিয়ার। মর্তুজ মিয়া দুবাই চলে গেলে তার স্ত্রী লিজা আক্তার কৌলায় বাবার বাড়িতে ২ বছর ধরে ছোট ছেলে মাহিনকে (৩) নিয়ে বসবাস করছেন।

রাতে ওই বাড়ির বসতঘরে সিঁধ কেটে শিশু মাহিনকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় বাড়ির লোকজন টের পেয়ে চিৎকার চেঁচামেচিও করেন। পরে ঘরের বাইরে একজনের পায়ের একটি জুুতা পাওয়া যায়। ধারণা করা হচ্ছে, লোকজনের হাতে ধরা পড়ার ভয়ে চোর জুতা ফেলে পালিয়েছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ঈসমাইল হোসেন জানান, এ বিষয়ে রাতেই থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। পুলিশ বিভিন্নভাবে শিশুটিকে উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

শিশুটির মা লিজা বেগম বলেন, তিনি তার ছেলেকে নিয়ে ঘুমে ছিলেন। হঠাৎ ঘুম থেকে উঠে দেখি ছেলে নেই। পরে দরজা খোলা এবং ঘরের একপাশে সিঁধ কাটা দেখতে পাই। সঙ্গে সঙ্গেই চিৎকার দেই। তখন লোকজন দ্রুত ঘর থেকে বের হয়।

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, শিশুটির মাকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। শিশুটিকে উদ্ধার করতে বিভিন্নভাবে চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিনয় ভূষণ রায় জানান, শিশুটিকে উদ্ধারে পুরো টিম কাজ করছে। আশা করছি দ্রুতই শিশুটিকে উদ্ধার করা যাবে।