নাটোরে সন্ত্রাসবিরোধী মিছিল শেষে বাড়ি ফেরার পথে আবুল হোসেন, লিটন আলী ও আজিজুল ইসলাম নামে তিন যুবলীগ কর্মী সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার রাতে শহরতলির একডালা এলাকায় দুর্বৃত্তরা তাদের ওপর চড়াও হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। 

আহতদের মধ্যে আবুল হোসেন ও লিটন আলী নামে দুজনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আহত আজিজুল নাটোর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। 

পুলিশ ও যুবলীগ দলীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যার পর শহরের স্টেশন বাজার এলাকায় যুবলীগ কর্মী আবুল মেম্বার ও তার সমর্থকরা বিএনপি-জামায়াতের নাশকতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে বিক্ষোভ শেষে ফিরে যাবার সময় একডালা এলাকায় প্রতিপক্ষের আওয়ামী লীগ কর্মী ইউসুফ গ্রুপের লোকজন তাদের ওপর হামলা করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এতে তিনজনই গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। 

সদর থানার ওসি নাছিম আহমেদ জানান, ঘটনার খবর পাওয়ার পর পরই পুলিশ ঘটনাস্থল এবং সদর হাসপাতালে অবস্থান নেয় এবং হামলাকারীদের ধরতে অভিযান শুরু করে।

জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন বিপ্লব বলেন, হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা না হলে তারা আন্দোলন করে শহর অচল করে দেওয়া হবে। 

এদিকে চেষ্টা করে প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগ কর্মী ইউসুফের সঙ্গে যোগাযোগ করা করা যায়নি।

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, বর্তমানে চলমান দুই গ্রুপের দ্বন্দ্বের জেরে এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। ঘটনার সাথে যেই জড়িত থাকুক না কেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ইতোমধ্যে জড়িতদের ধরতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।