বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, সমাজ সেবক ও ভাঙ্গা সরকারি কেএম কলেজের গভর্নিং বোর্ডের সাবেক সভাপতি কাজী একরামুল্লাহ্ মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রজিউন)। শনিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ব্যাংককের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৬৬ বছর। কাজী একরামুল্লাহ্ আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্লাহর ছোট ভাই।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, কাজী একরামুল্লাহ্ দীর্ঘদিন ধরে কিডনি রোগে ভুগছিলেন। দুই বছর আগে তার বাইপাস সার্জারি হয়। প্রায় সাড়ে পাঁচ মাস যাবৎ তিনি ব্যাংককের একটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। এ অবস্থায় শনিবার দুপুরে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। কাজী একরামুল্লাহ্‌ স্ত্রী এক ছেলে ও এক মেয়েসহ বহু গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া চেয়েছে তার পরিবার।

কাজী একরামুল্লাহ্র মৃত্যুতে তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে শোক প্রকাশ করেছেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের নের্তৃবৃন্দ, ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগ, ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগ, বিভিন্ন সংগঠন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ীগণ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ।

মরহুমের বড় ভাই কাজী জাফর উল্লাহর বরাত দিয়ে ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাইফুর রহমান মিরন সমকালকে জানান, কাল রোববার কাজী একরামুল্লাহ্‌র মরদেহ দেশে আনা হবে। গ্রামের বাড়ি কাউলীবেড়ায় পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হবে।