কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের (কুসিক) প্রথমবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নির্বাচিত পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর নতুন মেয়রের শপথ গ্রহণের আগ পর্যন্ত সময়ের জন্য দায়িত্ব পালনের জন্য প্রশাসক নিয়োগ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এবারের নির্বাচনের (তৃতীয়) আগে ঘটেছে ব্যতিক্রম ঘটনা।

কুসিকের বর্তমান পরিষদের মেয়াদ আগামী ১৬ মে শেষ হবে। তাই আগামী ১৭ মে থেকে সেখানে দায়িত্ব পালন করবেন কুসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও)। শনিবার রাতে অফিস আদেশ প্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কুসিকের সিইও ড. সফিকুল ইসলাম।

গত ১১ মে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব মোহাম্মদ শামছুল আলম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে কুসিকের প্রধান নির্বাহীকে দায়িত্ব গ্রহণের অফিস আদেশ দেওয়া হয়েছে।

এতে উল্লেখ করা হয়, স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন ২০০৯ এর ৬ ধারা অনুযায়ী আগামী ১৬ মে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের মেয়রের মেয়াদ শেষ হবে। ইতোমধ্যে নির্বাচনের তপশিল ঘোষণা করা হয়েছে। তাই আগামী ১৭ মে থেকে সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সিটি করপোরেশনের 'প্রশাসনিক ও আর্থিক' ক্ষমতার দায়িত্ব পালন করবেন।

এ বিষয়ে কুসিক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু সমকালকে বলেন, 'মন্ত্রণালয়ের এ সিদ্ধান্ত ভালো হয়েছে, প্রশাসকের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর ও গ্রহণ প্রক্রিয়া ঝামেলা, তাই নির্বাচন পর্যন্ত প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা দায়িত্ব পালন করতে সমস্যা হওয়ার কথা না।’ 

২০১২ এবং ২০১৭ সালের কুসিকের নির্বাচনে দুই মেয়াদে মেয়র নির্বাচিত হন জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিরুল হক সাক্কু। আসন্ন সিটি নির্বাচনেও তিনি স্বতন্ত্র প্রতীকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। আগামী ১৫ জুন ইভিএমে কুসিকের ১০৫ ভোটকেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।