কুষ্টিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র শাহিন উদ্দিন এবং কাউন্সিলর রেজাউল ইসলাম বাবুর মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়েছে। শাহিন উদ্দিনকে হত্যার হুমকি দেওয়ার ৭২ ঘণ্টা পর এই আপস হলো। 

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় জুগিয়া এলাকার একটি গোরস্থান চত্বরে বসে জেলা পরিষদ প্রশাসক রবিউল ইসলামসহ আওয়ামী লীগ নেতা ও অন্য কাউন্সিলররা উপস্থিত থেকে দুইজনের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির অবসান করে দেন। এ সময় শাহিন ও বাবু একে অন্যকে জড়িয়ে ধরেন। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন এক নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নাইমূল ইসলাম খান। তিনি বলেন, প্যানেল মেয়র শাহিনকে হুমকি দেওয়ার ঘটনায় গত বুধবার বিকেলে থানায় অভিযোগ দেন তিনি। পরের দিন কাউন্সিলর রেজাউল ইসলাম বাবু পাল্টা জিডি করেন শাহিনের বিরুদ্ধে। 

শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি তাইজাল আলী খান বলেন, হুমকির ঘটনায় সংবাদ প্রকাশের পর তোলপাড় সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েন জনপ্রতিনিধি ও কাউন্সিলররা।

মীমাংসার সময় জেলা পরিষদ প্রশাসক রবিউল ইসলাম শাহিন ও বাবুর উদ্দেশে বলেন, জনপ্রতিনিধিদের আচরণ হতে হবে সুন্দর। নিজেদের মধ্যে এ ধরনের ঘটনা সবার জন্য বিব্রতকর। ভুল বোঝাবুঝি থেকে এ ধরনের ঘটনা যাতে আর না ঘটে সেটা মনে রাখতে হবে। 

রবিউল ইসলাম বলেন, শাহিন ও বাবুর মধ্যে যে ঘটনা ঘটেছিল সেটা বসে ঠিক করে দেওয়া হয়েছে। দুজনের মধ্যে কোনো রাগ-অভিমান নেই।

প্যানেল মেয়র শাহিন উদ্দিন বলেন, নেতাদের নির্দেশে আমার এলাকায় বসে বিষয়টি সমাধান হয়েছে। কারও প্রতি কোনো অভিযোগ নেই আর। মিলেমিশে আমরা কাজ করতে চাই।

কাউন্সিলর বাবু বলেন, একটি ঘটনাকে কেন্দ্র করে এমনটি হয়েছিল। এখন আর মান-অভিমান নেই।