চট্টগ্রাম বন্দরের জন্য ২২ কোটি টাকায় তৈরি করা হাইস্পিড প্যাট্রল বোট আনা হয়েছে। এটি যে কোনো দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় সাগরে চলাচল করতে সক্ষম। আধুনিক নেভিগেশনাল যন্ত্রপাতি, স্যাটেলাইট রাডার, স্যাটেলাইট কম্পাস, দুটি ইঞ্জিন, তিনটি জেনারেটরসহ প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি রয়েছে এই বোটে।

এতে একসঙ্গে ১৬ জন বসতে পারবে। ইটালির রেভেনা বন্দর থেকে কনটেইনার জাহাজ সোঙ্গা চিতায় করে প্যাট্রল বোটটি চট্টগ্রাম বন্দরে আনা হয়।

বন্দর সচিব ওমর ফারুক জানান, প্যাট্রল বোটটি কাস্টমস ছাড়পত্র শেষে বন্দরের নৌ বিভাগ ট্রায়াল দেবে। এরপর এটি বন্দরের ১ নম্বর বার্থের সার্ভিস জেটিতে থাকবে। এ বোটটি পতেঙ্গা থেকে মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্রবন্দর পর্যন্ত ৬০ কিলোমিটার পথ দ্রুততম সময়ে পাড়ি দিয়ে পাইলটদের আনা-নেওয়া করতে সক্ষম হবে। এ ছাড়া বহির্নোঙরে অনাকাঙ্ক্ষিত দুর্ঘটনা ঘটলে দ্রুত উদ্ধার অভিযানও পরিচালনা করতে পারবে। বন্দর নৌ বিভাগের ১০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে বোটটি পরিচালনায় প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।