নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় সহপাঠীদের ছুরিকাঘাতে ধ্রুব (১৫) নামে দশম শ্রেণির এক ছাত্র খুন হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে ফতুল্লার ইসদাইরে ভুক্তভোগীর নিজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রাবেয়া হোসেন উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ধ্রুব ফতুল্লার ইসদাইর এলাকার মাদব চন্দ্রের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ধ্রুব, ইয়াসিন,পিয়াস, রিপন ও অন্তর ওই স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র। তারা এক সঙ্গে চলাফেরা করে। ছুটির পর প্রত্যেকেই স্কুলে সামনের চায়ের দোকানে গভীর রাত পর্যন্ত আড্ডা দেয়। 

ইসমাইল হোসেন নামে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, এ কয়েকজন সহপাঠী এক সঙ্গে চলাফেরা করত। চায়ের দোকানে দীর্ঘ সময় পর্যন্ত আড্ডাও দিত। 

ধ্রুবর অপর সহপাঠী ইয়াসিন জানায়, মঙ্গলবার রাতে পিয়াস তাকেসহ কয়েকজন বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে ধ্রুবকে ডেকে স্কুলের কাছে অন্ধকার স্থানে যায়। এরপর ধ্রুবকে পিয়াস ছুরিকাঘাত করে। অন্যরা মারধর করে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রিজাউল হক দিপু বলেন, স্থানীয় লোকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় ধ্রুবকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের চার সহপাঠীকে আটক করা হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্যদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।