কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গ্যাসের চুলার আগুনে অগ্নিদগ্ধ ছয়জনের মধ্যে বাবা-ছেলেসহ চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনজন মারা গেছেন।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুর এবং রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন ১৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক পুলিশ সুপার মো. নাইমুল হক।

নিহতরা হলেন- উখিয়া উপজেলার কুতুপালং ১ নম্বর ইস্ট রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-৪ ব্লকের আজগর আলীর ছেলে নুর আলম (৫৯), তার (নিহত নুর আলম) ছেলে আনোয়ার মোস্তফা (১২) এবং একই ক্যাম্পের আলী আহমদের ছেলে হাফিজুল মোস্তফা (৭)।

পুলিশ সুপার মো. নাইমুল হক জানান, গত ১২ মে সকালে উখিয়ার কুতুপালং ১ নম্বর ইস্ট রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-৪ ব্লকের বাসিন্দা নুর আলমের স্ত্রী ঘরে রান্না করার সময় গ্যাসের চুলার সংযোগ পাইপ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এতে আগুন লেগে গেলে ৬ জন দগ্ধ হন। পরে তাদের উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার তিনজন মারা যান।