রাজশাহীর দুর্গাপুর উপজেলার কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামে নিজ ঘর থেকে স্বামী-স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে তাদের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতরা হলেন ওই গ্রামের মৃত জাবেদ আলীর ছেলে সুলতান আলী (৪৫) ও তার স্ত্রী ইসনেহার বেগম (৩৮)। সুলতান আলী পেশায় ফেরিওয়ালা ছিলেন। তার স্ত্রী গৃহিণী ছিলেন। তাদের দুই সন্তান রয়েছে।

কাঁঠালবাড়িয়া গ্রামের ইউপি সদস্য মোসাব্বির মণ্ডল জানান, বুধবার দুপুরে সুলতানের ছেলে বাপ্পী বাড়ির বাইরে ছিল, মেয়ে ছিল স্কুলে। ওই সময় বাড়িতে শুধু সুলতান ও তার স্ত্রী ছিলেন। বিকেল ৩টার দিকে স্বজনরা তাদের শোবার ঘরে সুলতানের ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান। পরে দরজা ভেঙে ভেতরে ঢুকে বিছানায় তার স্ত্রী ইসনেহারের লাশ দেখতে পান।

দুর্গাপুর থানার ওসি নাজমুল হক জানান, সুলতান আলীর ফাঁস নেওয়া লাশ পাওয়া গেছে। তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তার স্ত্রীর মৃত্যু নিয়ে রহস্য দেখা দিয়েছে। ইসনেহারের শরীরে কোনো আঘাত নেই, বিষের গন্ধও নেই। ঘরের দরজা বন্ধ ছিল।

ওসি বলেন, ওই দম্পতির মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। তার স্ত্রী আত্মহত্যা করেছেন না তাকে হত্যা করে স্বামী আত্মহত্যা করেছেন এখনই তা বোঝা যাচ্ছে না। সিআইডি আলামত সংগ্রহ করেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।