কুষ্টিয়ায় ছেলের কাছে টাকা টাকা চাওয়ায় বাবাকে বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার সকালে কুষ্টিয়া পৌর এলাকার চর মিলপাড়ায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

নিহত বাবু হোসেন কুষ্টিয়া পৌরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা। তিনি ঢাকায় ফেরি করে খেলনা বিক্রি করতেন। ঢাকা থেকে দুদিন আগে বাড়ি এসেছেন বাবু। এ ঘটনায় অভিযুক্ত রমিজ হোসেন (১৮) নিহত বাবুর দ্বিতীয় ছেলে। তিনি দড়ির মিলে কাজ করেন।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেন

পুলিশ, নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুদিন ধরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে বাবু হোসেন ও তার ছেলে রমিজের মধ্যে ঝগড়া চলে আসছিল। শুক্রবার সকালে দুজনের মধ্যে এ নিয়ে কথা-কাটাকাটি ও তুমুল ঝগড়া চলছিল। একপর্যায়ে ছেলে বাঁশ দিয়ে আঘাত করলে বাবা গুরুতর আহত হন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে কুষ্টিয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত স্বজনরা বলেন, নিহত বাবু দুদিন আগে বাড়িতে এসেছেন। বাড়িতে এসে ছেলের কাছে টাকা চেয়েছিলেন। কিন্তু ছেলে টাকা দিতে রাজি হয়নি। এ নিয়ে দুদিন ধরে ঝগড়া চলছিল। এ নিয়ে শুক্রবার সকালে ছেলে তার বাবার মাথায় বাঁশ দিয়ে আঘাত করলে তার মৃত্যু হয়।

নিহত বাবুর স্ত্রী বলেন, আমি পরের বাড়িতে কাজ করে খাই। আর ছেলে দড়ি কারখানায় কাজ করে। তার বাবাকে টাকা না দেওয়ায় ঝগড়া হয়। ঝগড়ার জেরে বাঁশ দিয়ে বাবার মাথায় আঘাত করে ছেলে। এতে আমার স্বামীর মৃত্যু হয়েছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম বলেন, পারিবারিক ঝগড়াকে কেন্দ্র করে হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। অপরাধীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ঘটনায় এখনো মামলা হয়নি।