পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তের ভায়াডাক্টের (মাটির ওপর উড়াল অংশ) পিচঢালাইয়ের (কার্পেটিং) কাজ শেষ। বৃহস্পতিবার রাতে তা সম্পন্ন হয়েছে। জাজিরা প্রান্তেও কার্পেটিংয়ের কাজ শেষ পর্যায়ে। জয়েন্ট ১, ২ ও ৩-এর পিচঢালাই বাকি। মূল সেতুর মাওয়া প্রান্তে রোড মার্কিং কাজ শুরু হয়েছে।

মূল সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান মো. আবদুল কাদের সমকালকে এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, জাজিরা প্রান্তের কার্পেটিংয়ের কাজ অল্প বাকি রয়েছে। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতুর কার্পেটিংয়ের কাজ শেষ হয়েছে গত ২৯ এপ্রিল।

মাওয়া প্রান্তের ভায়াডাক্টের দৈর্ঘ্য ১ হাজার ৪৮৭ দশমিক শূন্য ৩ মিটার। জাজিরা প্রান্তে ভায়াডাক্টের দৈর্ঘ্য ১ হাজার ৬৭০ দশমিক শূন্য ৩ মিটার। সেতুতে ৪১৫টি ল্যাম্পপোস্ট বসানো হয়েছে। এতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার কাজ চলছে। পদ্মা সেতুর দুই প্রান্তে দুটি সাব-স্টেশন নির্মিত হবে। আগামী মাসের শেষ সপ্তাহে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়ার আগে এর কাজ শেষ হবে না। আপাতত পল্লী বিদ্যুতের সংযোগে পদ্মা সেতু আলোকিত হবে। সেতুর ভায়াডাক্টে রেলিং বসেছে। মূল সেতুতে স্থাপনের কাজও চলছে। এসব কাজ আগামী মাসেই শেষ হবে।