মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রীড়াবান্ধব সরকারপ্রধান। ক্রীড়াক্ষেত্রে সম্পৃক্তদের জন্য তার অপরিসীম আবেগ ও ভালোবাসা রয়েছে। তার সময়ে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় বাংলাদেশের ছেলে-মেয়েরা ক্রীড়াক্ষেত্রে সুনাম বয়ে এনেছে। ভবিষ্যতে এ পৃষ্ঠপোষকতা অব্যাহত থাকবে।

শনিবার পিরোজপুর জেলা স্টেডিয়ামে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতীয় গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের (বালক অনূর্ধ্ব-১৭) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। পিরোজপুর সদর উপজেলা প্রশাসন এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে বাংলাদেশ হতো না। এখনো পাকিস্তানের কলোনিতে আমরা থাকতাম। এ অসম্মান থেকে বাঙালি জাতিকে পরিত্রাণ দিতে বঙ্গবন্ধু সারা জীবন আরাধ্য সাধনা করে গেছেন। প্রায় চৌদ্দ বছর কারা অন্তরালে ছিলেন। অপরদিকে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ছিলেন বঙ্গবন্ধুর সকল কর্মের প্রেরণাদাত্রী। বঙ্গবন্ধুর শক্তি ছিল বাংলাদেশের জনগণ আর প্রেরণাদায়ী ছিলেন বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব।

এ সময় মন্ত্রী আরো বলেন, ক্রীড়াই শক্তি। আমাদের সন্তানদের ক্রীড়ার প্রতি উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা দিতে হবে। সুস্থ-সবল জাতি গড়তে ক্রীড়ার বিকল্প নেই। মাদক আর অপসংস্কৃতি থেকে জাতিকে দূরে রাখতে ক্রীড়ার কোন বিকল্প নেই। ক্রীড়া খাতকে যত বেশি বিকশিত করা যাবে তত বেশি আমাদের উন্নয়ন হবে। 

পিরোজপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বশির আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে পিরোজপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাহেদুর রহমান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থার যুগ্মপরিচালক আব্দুল কাদের, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি চান মিয়া মাঝি, সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার মাঝি, জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি ফারুক আবদুল্লাহ, জেলা আওয়ামী যুবলীগের সিনিয়র সহসভাপতি জাহিদ হোসেন পিরু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আহসানসহ স্থানীয় অন্যান্য সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।