সিরাজগঞ্জের তাড়াশে মুদি দোকানে হালখাতার খাবার খেয়ে অন্তত ২৫ জন অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাদের মধ্যে গুরুতর ১০ জনকে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাড়াশ সদর ইউনিয়নের কৃষ্ণাদিঘি বাজারে ঘটনাটি ঘটে।

জানা গেছে, গত শুক্রবার কৃষ্ণাদিঘি বাজারের মুদি দোকানি মো. শাহাবুদ্দিন তার দোকানে বার্ষিক হালখাতার আয়োজন করেন। তালিকায় ছিল মাংস খিচুড়ি ও সালাদ। এই খাবার খেয়ে পেটের সমস্যায় পড়েন অনেকে। হাসপাতালে ভর্তি হন বোয়ালিয়া গ্রামের আশরাফ আলীর স্ত্রী মর্জিনা বেগম, ছেলের বউ লাবনী খাতুন, নাতনি মর্শিদা, একই গ্রামের কয়েকটি পরিবারের ফাতেমা, মিলন আকন্দ, রিতা পারভীন, শাহ আলম, জিহাদ প্রামাণিক, জয়ান সরকার। অন্যরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন।

রোগী মর্জিনা বেগম জানান, হালখাতার খাবার খাওয়ার পর তাদের পরিবারের তিন সদস্যের তীব্র পেট ব্যথার পাশাপাশি পাতলা পায়খানা শুরু হয়। বমিও হয়।

অবশ্য মুদি দোকানি শাহাবুদ্দিন বলেন, আমার দোকানে ১২৪ জন হালখাতার খাবার খেয়েছেন। জানতে পেরেছি কয়েকজন অসুস্থ হয়েছেন। খাবারের সমস্যা থাকলে সবারই অসুস্থ হওয়ার কথা।

তাড়াশ উপজেলা ৫০ শয্যা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. মো. মনোয়ার হোসেন জানান, খাবারে বিষক্রিয়ার কারণে অনেকে অসুস্থ হন।