বাবার কাছে নেশার টাকা চেয়ে না পেয়ে অভিমানে আত্মহত্যা করেছে ছেলে। নিহত ওই যুবকের নাম আকাশ সাহা (২০)। আকাশ ফরিদপুর শহরের রথখোলা এলাকার রবিদাস পল্লীর বাসিন্দা বিদ্যুত সাহার ছেলে। সোমবার (২৩ মে) সন্ধ্যা ৭টার দিকে রবিদাস পল্লীর নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ফরিদপুর শহরের রথখোলা এলাকার রবিদাস পল্লীর বাসিন্দা বিদ্যুত সাহা। বিদ্যুত সাহা ভ্যানে করে আইসক্রিম বিক্রি করেন। তার স্ত্রী দিপালী সাহা মানুষের বাসা বাড়িতে কাজ করেন। বিদ্যুত সাহা ৩ মেয়ে ও ১ ছেলের জনক।

ছেলে আকাশ সাহা নিয়মিত মাদক সেবন করত। এ নিয়ে বাবার সাথে ছেলের মাঝে মধ্যেই ঝামেলা হতো। সোমবার সন্ধ্যায় বাবা বিদ্যুত সাহার কাছে টাকা চায় ছেলে আকাশ। বাবা টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে অভিমানে আকাশ ঘরের দরজা বন্ধ করে ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে রশি দিয়ে ঝুলে আত্মহত্যা করে।

স্থানীয় বাসিন্দা আশরাফ হোসেন বলেন, আকাশ নিয়মিত মাদক সেবন করত। দরিদ্র পরিবার হওয়ায় বাবার কাছে টাকা চেয়ে না পেয়ে মাঝে মধ্যেই পিতা-পুত্রের মাঝে ঝগড়া বিবাদ লাগত। সোমবার সন্ধ্যায়ও বাবার কাছে টাকা চায় আকাশ, কিন্তু টাকা না দেওয়ায় আকাশ আত্মহত্যা করে।

ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম এ জলিল জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়। রাতেই মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে সে আত্মহত্যা করেছে।