সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে নিখোঁজের চারদিন পর শিশুর হাত পা বাঁধা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬ টার দিকে সলঙ্গার সীমান্তবর্তী ভূইয়াগাঁতী গ্রামের জঙ্গলে গাছের সঙ্গে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। লাশটি গরমে পচে গেছে। 

জানা গেছে, শিশুটির নাম রাশিদুল ইসলাম। ধামাইনগর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্র ছিল সে। রায়গঞ্জের ধামাইনগর গ্রামের মোশারফ হোসেনের ছেলে। 

সলঙ্গা থানার ওসি আব্দুল কাদের জিলানী বলেন, ‘বড়ভাইয়ের ভ্যান নিয়ে গত বৃহস্পতিবার বাড়ি থেকে বের হয়। পরে আর বাড়ি ফেরেনি। তাকে না পেয়ে তার স্বজনরা রায়গঞ্জ থানায় জিডি করেন। স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হলেও ভ্যানটি পাওয়া যায়নি। শিশুটিকে গাছের সাথে বেঁধে নির্মমভাবে কারা হত্যা করলো, তার রহস্য এখনও জানা যায়নি।’ 

রায়গঞ্জ থানার ওসি মোঃ রফিকুল ইসলাম সন্ধায় জানান, ‘লাশটি পচে গলে যাওয়ায় চেহারা বোঝা কঠিন। লাশটি স্বজনরা রাশেদুল হিসেবে সনাক্ত করছেন। ময়নাতদন্তের পাশাপাশি ডিএনও পরীক্ষার জন্য সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে লাশটি। লাশটি যদি রাশিদুলের হয়, ভ্যান ছিনতাইয়ের পর খুন হতে পাওে সে। ডাক্তারি পরীক্ষার পর খুনের রহস্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা করা হবে।