পদ্মা সেতু নিয়ে টিকটক ভিডিও বানিয়ে অপপ্রচারের অভিযোগে এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অভিযুক্তের নাম হেলাল উদ্দিন ঢালী (২৩)। সে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বিকেনগর পূর্ব কাজীকান্দি গ্রামের সিরাজ ঢালীর ছেলে।

অভিযুক্ত হেলালের বিরুদ্ধে জাজিরা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। এ মামলায় তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, হেলাল পদ্মা সেতুর নদীশাসন প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সিনোহাইড্রোতে শ্রমিকের কাজ করতেন। সোমবার বিকেলে সেতুর নিরাপত্তায় নিয়োজিত শেখ রাসেল সেনানিবাসের সেনাসদস্যরা পশ্চিম নাওডোবা এলাকায় টহল দিচ্ছিলেন। তারা দেখতে পান সেতুর ৪২ নন্বর পিলারের কাছে হেলাল উদ্দিন টিকটক ভিডিও বানাচ্ছেন। তখন তাকে আটক করা হয়। জব্দ করা হয় দুটি মুঠোফোন। মুঠোফোনে পদ্মা সেতু নিয়ে বিভিন্ন নেতিবাচক প্রচারণার টিকটক ভিডিও পাওয়া যায়। পরে সেনাসদস্যরা হেলালকে জাজিরায় নিয়ে যান। সেখানে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

চিকিৎসা দিয়ে মঙ্গলবার হেলাল উদ্দিনকে জাজিরা থানায় হস্তান্তর করেন সেনাসদস্যরা। জাজিরা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে হেলালের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। এ মামলায় সন্ধ্যায় তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে শরীয়তপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে হাজির করা হয়। বিচারক আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে হেলালকে জেলা কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।

এসব তথ্য জানিয়ে এসআই জসিম উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, হেলাল উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে সেতুর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অপপ্রচারমূলক ভিডিও বানাচ্ছিলেন। সেই ভিডিও বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছিলেন। প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে এসব অভিযোগ স্বীকার করেছেন তিনি।