পশ্চিম আফ্রিকার দেশ সেনেগালের একটি হাসপাতালের শিশু ইউনিটে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ১১ নবজাতকের মৃত্যু হয়েছে।

দেশটির প্রেসিডেন্ট ম্যাকি সেলি এক টুইটার বার্তায় অগ্নিকাণ্ডে ১১ শিশুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। খবর ডেইলি মেইল ও হিন্দুস্থান টাইমসের।

এক টুইটে তিনি জানান, রাজধানী ডাকার থেকে প্রায় ১২০ কিলোমিটার পূর্বে তিভাউয়ানে শহরের একটি আঞ্চলিক হাসপাতালের শিশু বিভাগে ওই অগ্নিকাণ্ড ঘটে।

জানা গেছে, বুধবার দিবাগত মধ্যরাতে তিভাউয়েনের মামে আবদু আজিজ সি দাবাখ হাসপাতালের নিওনেটোলজি বিভাগে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ফায়ারসার্ভিস ও উদ্ধারকর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। কিন্তু ততক্ষণে ১১ নবজাতক প্রাণ হারায়।

ওই টুইটে প্রেসিডেন্ট ম্যাকি সাল আরও জানান, ওই হাসপাতালের শিশু বিভাগে অগ্নিকাণ্ডে ১১টি নবজাতকের মৃত্যুর সংবাদ আমি জানতে পেরেছি, যা আমাকে বেদনা দিয়েছে ও হতাশ করেছে। এ ঘটনায় নবজাতকগুলোর মা ও পরিবারের সদস্যদের আমি অন্তরের গভীর থেকে সহানুভূতি জানাচ্ছি।

হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ওই ঘটনা নিয়ে অবশ্য বিস্তারিত কোনো তথ্য ওই টুইটে দেননি প্রেসিডেন্ট ম্যাকি সাল। তবে সেনেগালের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আবদুলায়ে দিউফ সার দেশটির বেসরকারি টিভি স্টেশন টিএফএমকে বলেছেন, প্রাথমিক তদন্তে মনে হয়েছে, বৈদ্যুতিক গোলযোগ থেকে সেখানে আগুনের সূত্রপাত হয়েছিল।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সম্মেলনে যোগ দিতে জেনেভায় অবস্থানরত সার বলেছেন, সফর সংক্ষিপ্ত করে তিনি দেশে ফিরে যাচ্ছেন।

তিভাউয়ানের মেয়র দেম্বা দিওপ সি বলেছেন, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস ওই হাসপাতালে উদ্ধার কাজ চালিয়েছে। মাত্র তিনটি শিশুকে আগুন থেকে রক্ষা করা গেছে। তবে তিনিও বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারেননি।

এর আগে এপ্রিলের শেষের দিকে সেনেগালের উত্তরাঞ্চলীয় শহর লিঙ্গুরির একটি হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় চার নবজাতকের মৃত্যু হয়েছিল।