স্বর্ণে মোড়ানো একটি ট্রফির জন্য ৩২ দল মাঠে লড়াই করে। নিজ দেশ অংশগ্রহণ করতে না পারলেও ফুটবলের সবচেয়ে বড় মহাযজ্ঞ বিশ্বকাপে বুঁদ হয়ে থাকেন বাংলাদেশের ফুটবলপ্রেমীরা। প্রিয় দলের হাতে যে ট্রফি উঠলে আনন্দে উদ্বেলিত হয়ে থাকেন, সেই ট্রফি এবার নিজ চোখে দেখার সুযোগ পাচ্ছেন তারা। ৮ জুন ঢাকায় আসবে ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের ট্রফি। 

২০১৩ সালের পর আবারও ট্রফির সঙ্গে ছবি তোলার সুযোগ পাচ্ছেন ফুটবলপ্রেমীরা। ঢাকার আর্মি স্টেডিয়ামে ট্রফিটি দুই দিনের জন্য প্রদর্শন করা হবে বলে বাফুফের একটি সূত্র জানিয়েছে। সে হিসেবে বিশ্ব ভ্রমণে দুই দিন অর্থাৎ ৮ ও ৯ জুন ঢাকায় থাকবে বিশ্বকাপের ট্রফি।

২০১৪ ব্রাজিল বিশ্বকাপের ট্রফি এলেও ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের ট্রফি ঢাকায় আসেনি। বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার ট্রফি সফরের কমার্শিয়াল পার্টনার কোকাকোলা। ২০১৩ সালে যে তিন দিন ট্রফি ছিল ঢাকায়, সে সময়ও ট্রফি প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করেছিল এ প্রতিষ্ঠানটি। ৯ বছর আগে ট্রফিটি প্রদর্শনীর জন্য রাখা হয়েছিল হোটেল র‍্যাডিসনে। সে সময় ফুটবলপ্রেমীরা পূর্বনির্ধারিত রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে ট্রফির সঙ্গে ছবি তুলতে পেরেছিলেন এবং সেই ছবি কোকাকোলার মাধ্যমে ততক্ষণাৎ প্রিন্ট কপিও পেয়েছিলেন দর্শনার্থীরা। 

এবারও একই রকম সুযোগ থাকবে বলে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন থেকে জানানো হয়েছে। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও কোনো ঘোষণা দেয়নি বাফুফে কিংবা কোকাকোলা। কয়েক দিনের মধ্যে দুটি সংস্থা একটি যৌথ বিজ্ঞপ্তি অথবা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ঢাকায় ট্রফি আগমনের বিষয়টি নিশ্চিত করবে। তবে ট্রফি যে আসছে, এটা নিশ্চিত। ফিফা ও বিশ্বকাপের ট্রফি সফরের পৃষ্ঠপোষক কোকাকোলা যৌথভাবে ঠিক করে কোন কোন দেশে ট্রফি যাবে। এরই ধারাবাহিকতায় আবারও ঢাকায় আসছে বিশ্বকাপের ট্রফি।