ভারতের কাশ্মিরে ঘরে ঢুকে আমরিন ভাট নামের এক অভিনেত্রী ও গায়িকাকে গুলি করে হত্যা করেছে  বিচ্ছিনতাবাদী জঙ্গিরা। এ ঘটনায় আমরিনের ১০ বছর বয়সী ভাতিজা গুরুতর আহত হয়েছে। বুধবার রাত ৮টার দিকে বদগামের চদোরা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আনন্দবাজারের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এ ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহসহ উপত্যকার বহু রাজনৈতিক নেতা।

পুলিশ সূত্রে জানায়, বুধবার রাত ৮টার দিকে বদগামের চদোরা এলাকায় আমরীনের বাড়িতে ঢুকে পড়ে তিন সশস্ত্র জঙ্গি। জঙ্গিদের এলোপাথাড়ি গুলিতে গুরুতর জখম হন ৩৫ বছরেরে আমরিনের ঘাড়ে গুলি লাগে। ঘটনাস্থলে উপস্থিত অমরীনের ১০ বছরের ভাতিজার হাতেও গুলি লেগেছে। রাতেই দু’জনকেই আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে আমরীনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। অভিনেত্রীর ভাতিজার হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে।

কাশ্মীর পুলিশ জানিয়েছে, টেলিভিশনে অভিনয়ের পাশাপাশি নেটমাধ্যমেও নিজের গানের ভিডিও আপলোড করতেন অমরীন। হামলাকারী তিনজনই জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তৈবার সদস্য বলে জানা গেছে।

একটি টুইটে ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা তথা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ বলেন, ‘আমরিন ভাটের উপর জঙ্গি হামলার ঘটনায় আমি গভীরভাবে মর্মাহত। দুঃখজনকভাবে আমরিন হামলায় প্রাণ হারায় এবং তার ভাইপো জখম হয়। নিরপরাধ নারী ও শিশুদের ওপর এভাবে হামলার কোনও যৌক্তিকতা থাকতে পারে না'।  ওমরের মতোই এই হামলার নিন্দা করেছেন বিজেপি নেতা আলতাফ ঠাকুর। ঘটানাটিকে ‘বর্বরোচিত’আখ্যা দিয়েছেন তিনি।