পটুয়াখালীর দুমকীতে সাবেক স্ত্রীকে পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে জলিল নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। গত বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়নের ধোপরহাট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ইতি আক্তার (২৬) ওই গ্রামের আবদুল মান্নান খানের মেয়ে। অভিযুক্ত জলিল কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার নুর আলীর ছেলে।

নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সাত বছর আগে জলিলের সঙ্গে ইতির বিয়ে হয়। এ সময় দু'জন ঢাকায় থাকতেন। বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই যৌতুকের জন্য ইতিকে মারধর করতেন জলিল। প্রায় পাঁচ বছর আগে ইতি ঢাকা থেকে দুমকীতে বাবার বাড়ি চলে আসেন এবং একটি ছেলেসন্তান জন্ম দেন। এখানে এসেও ইতির ওপর অত্যাচার চালাত জলিল। অত্যাচার সইতে না পেরে এক সপ্তাহ আগে স্বামীকে তালাক দেন ইতি। এতে ক্ষিপ্ত হন জলিল। বৃহস্পতিবার রাতে জলিল ঢাকা থেকে ইতির বাড়িতে যান। এ সময় ইতি ঘুমিয়ে ছিলেন। ঘুমন্ত ইতির গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় জলিল। পুড়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ইতির।
ইতির বাবা মান্নান খান বলেন, মেয়ের ডাক-চিৎকার শুনে উঠে দেখি তার গায়ে আগুন এবং জলিল দৌড়ে পালিয়ে যাচ্ছে।
দুমকী থানার ওসি আবদুল সালাম জানান, ইতির লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।