দীর্ঘ এক যুগ পর চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের ত্রি বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়ে পটিয়া আদর্শ উচ্চবিদ্যালয় মাঠে। এই সম্মেলন ঘিরে গিরিচৌধুরী বাজার থেকে পটিয়া সদরমুখী সব যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। পটিয়া বাইপাসের ইন্দ্রপুল এলাকা থেকেও যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

পটিয়া সদর থেকে প্রায় ২ কিলোমিটার দূরে যানবাহন বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন যাত্রীরা।

স্ত্রী ও দুই শিশু সন্তান নিয়ে চট্টগ্রাম নগীর শাহ আমানত সেতু থেকে বাসে করে পটিয়া যাচ্ছিলেন জাফর আহমদ।

পটিয়া বাইপাস ইন্দ্রপোল এলাকায় থেকে হেঁটে আসছিলেন তিনি। 

তিনি সমকালকে বলেন, আওয়ামী লীগের সম্মেলন হবে সেটা ভালো কথা, এলাকাতেও উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে।কিন্তু সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেওয়ায় সাধারণ মানুষ কষ্ট পাচ্ছে। বিষয়টি আমার নিজের কাছে ভালো লাগেনি। সাধারণ যাত্রীরাও ক্ষুব্ধ, অসন্তুষ্ট।

ফারজানা আলম নামে একজন যাত্রী সমকালকে বলেন, সম্মেলন যারা আয়োজন করেছেন তাদের চেয়ে এই সম্মেলন নিয়ে পুলিশই মনে হয় বেশি উৎসাহী। সড়কের গাড়ি চলাচল করার মতো পরিস্থিতি থাকার পরও পুলিশ গাড়ি চলতে দিচ্ছে না। এটা অন্যায়। 

পটিয়ার সড়কে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের একজন সমকালকে বলেন, দক্ষিণ চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে গাড়ি নিয়ে সম্মেলনে এসেছেন যুবলীগের নেতাকর্মীরা। সড়কে বিপুল সংখ্যক গাড়ির জটলা তৈরি হয়েছে। সাধারণ যানবাহন চলাচল করতে দেওয়া হলে যানজট সৃষ্টি হবে। এতে সাধারণ মানুষেরই কষ্ট বাড়বে।

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবলীগের ত্রিবার্ষিক কাউন্সিল উদ্বোধন করেছেন দলটির চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করছেন জেলা যুবলীগের সভাপতি আ ম ম টিপু সুলতান চৌধুরী ও সঞ্চালনা করছেন করছেন জেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক পার্থ সারথি চৌধুরী।