হবিগঞ্জ জেলায় টানা দুই দিন অভিযান চালিয়ে ১৮টি অনিবন্ধিত বেসরকারি হাসপতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। শনি ও রোববার জেলার বিভিন্ন স্থানে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও উপজেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযানে এসব অনিবন্ধিত হাসপাতাল ক্লিনিক বন্ধ করে দেওয়া হয়।

রোববার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন হবিগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. নূরুল হক। তিনি বলেন, যে সব হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে বৈধ কাগজপত্র নেই বা অনিবন্ধিত সেগুলো অভিযানের মাধ্যমে সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও কয়েকটি হাসপাতাল-ক্লিনিকের মালিকদের বন্ধের পাশাপাশি জরিমানাও করা হয়েছে।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, জেলার কোথাও অনিবন্ধিত ক্লিনিক-হাসপাতালের কার্যক্রম চলতে দেওয়া হবে না। এ বিষয়ে স্বাস্থ্য বিভাগ কঠোর অবস্থানে রয়েছে। 

যেসব হাসপাতাল ও ক্লিনিক বন্ধ করা হয়েছে সেগুলো হলো শায়েস্তাগঞ্জ পিপলস মেডিকেল সার্ভিসেস, চুনারুঘাট সূর্যের আলো ডায়াগনস্টিক সেন্টার, এমকে ডায়াগনস্টিক সেন্টার, গ্রিন লাইফ ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ঢাকা ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ঢাকা ডায়াগনস্টিক সেন্টার মাধবপুর, মাধবপুর তিতাস মা ও শিশু জেনারেল হাসপাতাল, মাধবপুর সেবা ডায়াগনস্টিক সেন্টার।

এছাড়াও মাধবপুর প্রাইম ডায়াগনস্টিক সেন্টার, মাধবপুর এপোলো ডায়াগনস্টিক সেন্টার, হবিগঞ্জ সদরের রোকেয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টার, সিটি চক্ষু হসপাতাল, স্বাস্থ্যসেবা ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ইবনে সিনা ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ডা. সানি কনসালটেশন সেন্টার, শায়েস্তাগঞ্জ এপোলো ডায়াগনস্টিক সেন্টার, বাহুবল নিউ জেনারেল ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ডক্টরস হসপিটাল বন্ধ করে দেওয়া হয়।