দিনাজপুরে দোকানে বসাকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটির সময় স্ত্রী পায়ে ধারালো বটির কোপ দেওয়ার পর মুক্তার আলী মণ্ডল (৪০) নামে এক স্টেশনারি ব্যবসায়ী আত্মহত্যা করেছেন। রোববার দুপুরে জেলা শহরের রামনগর এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

মৃত মুক্তার আলী নওগাঁর পত্নীতলা মদইন গ্রামের সিরাজ মন্ডলের ছেলে। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দিনাজপুর রামনগর এলাকায় সস্ত্রীক বসবাস করে আসছিলেন। 

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, দুপুরে স্বামী মুক্তার আলীর সাথে তার স্ত্রী মোতাহীরা আক্তারের (৩৫) স্টেশনারি দোকানে বসা নিয়ে কথাকাটি হয়। এরই একপর্যায়ে স্বামী মুক্তার তাদের বাড়ির বারান্দায় থাকা একটি ধারালো বটি দিয়ে মোতাহীরা আক্তারের বাম পায়ে কোপ বসিয়ে দেয়।

এ সময় এলাকাবাসী মোতাহীরাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়। পরে স্বামী নিজ শয়নকক্ষের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।

নিহতের স্ত্রী মোতাহীরা আক্তার জানিয়েছেন, তার স্বামী মুক্তার মন্ডলের মানসিক সমস্যা ছিল। সে সবসময় দোকানে বসতেন না। এই নিয়েই কথা কাটাকাটি হয়। দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) নুর আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছন।