বগুড়ার ধুনট উপজেলায় শাপলা খাতুন নামে এক গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার পারধুনট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শাপলা উপজেলার পারধুনট গ্রামের আলমগীর হোসেনের স্ত্রী।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, স্বামী আলমগীর হোসেন বাড়িতে স্ত্রী-সন্তান রেখে ঢাকায় রিকশা চালান। প্রতিদিনের ন্যায় বুধবার রাতে খাবার খেয়ে শিশুকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন শাপলা। সকালে তাকে ডাকাডাকির পর সাড়া না পাওয়ায় সন্দেহ হয়। পরে ঘরের বেড়া কেটে ভেতরে গিয়ে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

ধুনট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাজ্জাকুল ইসলাম জানান, পরিবার থেকে জানানো হয়, শাপলা বিদুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন। কিন্তু সুরতহাল প্রতিবেদনে গলায় আঘাতের চিহ্ন থাকায় বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ হয়।

তিনি বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহামান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।