চট্টগ্রামে ছাড়পত্র, নিবন্ধন এবং লাইসেন্সবিহীন কোনো আবাসিক হোটেল ও রেস্তোরাঁ থাকলে সংশ্নিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান।

বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আবাসিক হোটেল ও রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ হুঁশিয়ারি দেন। এ সময় অবৈধ প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিবন্ধনের আওতায় আসতে ৩০ জুন পর্যন্ত সময় বেঁধে দেন তিনি।

মমিনুর রহমান বলেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসায় হোটেল-রেস্তোরাঁ ব্যবসায় প্রাণ ফিরছে। পর্যটকদের সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে আরও স্বচ্ছতা অবলম্বন করতে হবে এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। সব হোটেল ও রেস্তোরাঁয় সিসিটিভি ক্যামেরা বসাতে হবে, কর্মচারীদের ডাটাবেজ তৈরি করতে হবে। সেই সঙ্গে ১৫ দিনের মধ্যে লাইসেন্সের তথ্য দিতে হবে।