চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কনটেইনার বিস্ফোরণে নিহতদের মধ্যে মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ২৬ জনের মরদেহ তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। একইসঙ্গে বাকি মরদেহের পরিচয় শনাক্ত করতে এ পর্যন্ত ৩৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে বুথ স্থাপন করে দ্বিতীয় দিনের মতো নমুনা সংগ্রহ কার্যক্রম পরিচালনা করেন সিআইডির সদস্যরা।

চট্টগ্রাম সিআইডি ক্রাইমসিন ইউনিটের পরিদর্শক মিজান ফেরদাউস জানান, পরিচয় শনাক্ত করতে দ্বিতীয় দিনের মতো নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। দুপুর পর্যন্ত ২২ জনের বিপরীতে ৩৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। মরদেহের সঙ্গে ডিএনএ বিশ্লেষণ করে পরিচয় শনাক্ত করা হবে।

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসনের দায়িত্বপ্রাপ্ত এক কর্মকর্তা সমকালকে বলেন, মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত পরিচয় শনাক্ত হওয়া ২৬ জনের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বাকিদের পরিচয় শনাক্ত করার কাজ চলমান রয়েছে।

এদিকে মঙ্গলবার সকাল থেকে স্বজনদের খোঁজ পেতে হাতে ছবি, ব্যানার নিয়ে চমেক হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে ছুটে আসেন অনেকে।