সারাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে সাড়ে তিনশ ছাড়িয়ে গেছে। 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, বুধবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজার ২০০টি নমুনা পরীক্ষা করে ওই ৩৫৭ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১৯ লাখ ৫৪ হাজার ৯৪৪ জন।

দৈনিক শনাক্ত রোগীর এই সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে ১৩৫ জন বেশি; বুধবার ২৩২ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর দিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। 

সর্বশেষ ৮ মার্চ এর বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছিল এক দিনে, সেদিন ৪৪৬ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল।

করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রমণের দাপট কমলে ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা হাজারের নিচে নেমে আসে। ধারাবাহিকভাবে কমতে কমতে এক পর্যায়ে ২৬ মার্চ তা একশর নিচে নেমে এসেছিল।

সংক্রমণ কমার ধারায় গত ৫ মে দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যা নেমেছিল ৪ জনে। তবে গত ২২ মের পর থেকে টানা দুই সপ্তাহ ধরে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা আবারও বাড়ছে।

১১ সপ্তাহ পর দৈনিক শনাক্ত কোভিড রোগীর সংখ্যা গত রোববার আবার একশ ছাড়িয়ে যায়। সেদিন সারা দেশে ১০৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ার কথা জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। 

নতুন করে আক্রান্ত ৩৫৭ জনের মধ্যে ৩২৮ জনই ঢাকা মহানগর ও জেলার বাসিন্দা। এর বাইরে চট্টগ্রামে ১৬ জন, কক্সাবাজারে ৭ জন, নারায়ণগঞ্জে ও বরিশালে ২ জন করে এবং গাজীপুর, চাঁদপুরে একজন করে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে।

গত এক দিনে নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার বেড়ে ৫ দশমিক ৭৬ শতাংশ, যা আগের দিন ৩ দশমিক ৮৮ শতাংশ ছিল।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যুর খবর আসেনি। ফলে মৃত্যুর মোট সংখ্যা আগের মতই ২৯ হাজার ১৩১ জন রয়েছে।