ভোলার ইলিশার জংশন বাজারের একটি পাঠাগার থেকে জামায়াতে ইসলামের ৮ জন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এনএসআই ও পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে। এসময় তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ জিহাদী বই ও জামায়াতের সদস্য ফরম উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশের দাবি, ভারতে হযরত মুহাম্মদ (স.)-কে কটূক্তি করাকে কেন্দ্র করে মুসল্লিদের চলমান আন্দোলন ঘিরে নাশকতা সৃষ্টির জন্য গোপন বৈঠক করছিলেন আটককৃতরা।

জানা যায়, সদর উপজেলার জংশন বাজারে একটি পাঠাগারে জামায়াতের গোপন বৈঠক চলছে এনএসআই'র এমন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় পুলিশ অভিযান চালায়।

বৈঠক থেকে জামায়াতে ইসলামের জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক মো. হারুনুর রশিদ, জামায়াতের সদর উপজেলা সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, পূর্ব ইলিশা ইউনিয়ন জামায়াতের আমির নুরুল ইসলাম, জামায়াত নেতা মো. আবদুল্লাহ, মো. রুহুল আমিন, মো. ফারুক, বেলায়েত হোসেন, ইলিশা ইউনিয়ন জামায়াতের সদস্য মো. আক্তার হোসেন নামের ৮ জনকে আটক করে। এসময় জামায়াতের ইসলামীর সদস্য ফরম, যুদ্ধাপরাধীদের লেখা ও জিহাদী বই, চাঁদার রশিদ জব্দ করা হয়।

ইলিশা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই মো. সিদ্দিক জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইন মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সদর মডেল থানার ওসি এনায়েত হোসেন জানান, আটক ৮ জনকে ইলিশা থেকে সদর থানায় আনা হচ্ছে। থানার আনার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।