রাজবাড়ী শহরতলীর গোদারবাজার এলাকায় পদ্মা নদীতে রোববার সকালে জেলের জালে ধরা পড়েছে সাড়ে ২২ কেজি ওজনের একটি পাঙাশ মাছ। ওই জেলের নাম মোনতাজ উদ্দিন শেখ। তার বাড়ি গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের যদুফকিরপাড়ায়। মাছটি তিনি দৌলতদিয়ার মাছের ব্যাপারী মাসুদ মোল্লা ও লাল চাঁদের কাছে ২৯ হাজার ২৫০ টাকায় বিক্রি করেছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানায়, মোনতাজ শেখ একজন মৎস্যজীবী। নদীতে মাছ শিকার করেই তিনি জীবীকা নির্বাহ করেন। শনিবার মাঝরাতে তার এক সহযোগীর সঙ্গে নৌকা নিয়ে পদ্মা নদীতে মৎস্য আহরণে বের হন। ভাসতে ভাসতে তারা চলে আসেন সদর উপজেলার গোদারবাজার এলাকায়।

সারারাত জাল ফেলেছেন নদীতে। তাতে ছোট মাছ ধরা পড়েছে কয়েকটা। ভোর পাঁচটার দিকে জাল ফেলার পর বড় একটা ঝাঁকুনি দেয়। জাল তুলে দেখেন বিশাল এক পাঙাশ মাছ। পরে সেটি তিনি দৌলতদিয়া আড়তে নিয়ে উন্মুক্ত নিলামে ১ হাজার ৩০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেন।

জেলে মোনতাজ শেখ জানান, অনেকদিন বড় কোনো মাছ শিকার করেননি তিনি। এই মাছটি শিকার করতে পেরে তিনি খুব খুশি।

মাছের ক্রেতা মৎস্য ব্যবসায়ী লালচাঁদ খান বলেন, মাছটি জেলে মোনতাজের কাছ থেকে ২৯ হাজার ২৫০ টাকায় কিনেছেন। মাছটি বিক্রির জন্য মোবাইল ফোনে দেশের বিভিন্ন এলাকায় যোগাযোগ করা হচ্ছে। কেজিপ্রতি একশ টাকা লাভে মাছটি বিক্রি করা হবে।

গোয়ালন্দ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা টিপু সুলতান জানান, পদ্মা নদীতে পানি বাড়ায় এখন মাঝে মধ্যে বড় বড় মাছ ধরা পড়ছে। পাঙাশ, রুই, কাতলা, বোয়াল, বাগাড়সহ বিভিন্ন প্রজাতির মাছ পদ্মায় রয়েছে। এসব মাছ খুবই সুস্বাদু হয়ে থাকে।