বরিশাল নগরীর একট বেসরকারি হাসপাতালে তিন কন্যাসন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক গৃহবধূ। নবজাতকদের নাম রাখা হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নামের সঙ্গে মিল রেখে- ‘স্বপ্ন, পদ্মা ও সেতু’। পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দুই দিন আগে তিন নবজাতক পৃথিবীর আলো দেখায় নবজাতকের বাবা তার কন্যাদের এই নাম রেখেছেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, নুরুন্নাহার বেগম (২২) নামের ওই গৃহবধূর বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় প্রসবব্যথা ওঠায় নগরের ডা. মোখলেছুর রহমান হসপিটাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। পরে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তিন নবজাতকের প্রসব করানো হয়।

তিন নবজাতকই কন্যাশিশু। নবজাতকদের মা নুরুন্নাহার বেগম বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার চরামদ্দির বাসিন্দা ও ভাড়ায়চালিত মোটরসাইকেলচালক বাবু সিকদারের স্ত্রী।

নবজাতকদের দাদি মমতাজ বেগম জানান, সকালে নুরুন্নাহারকে বরিশাল নগরের সদররোডের মোখলেছুর রহমান হসপিটাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। সাড়ে ৮টার দিকে ডা. মুন্সী মুবিনুল হক অস্ত্রোপচার করে তিন নবজাতককে প্রসব করান।

চিকিৎসক মুন্সী মুবিনুল হক বলেন, তিন নবজাতক ও তাদের মা সুস্থ আছেন। সদ্য ভূমিষ্ঠ শিশুদের মধ্যে দু’জনের ওজন দেড় কেজি করে এবং একজনের ১ কেজি ৪০০ গ্রাম। আশা করি তারা সবাই যথাসময়ে সুস্থভাবে বাড়িতে ফিরতে পারবেন।

নবজাতকদের বাবা বাবু সিকদার বলেন, স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনের বাকি মাত্র দুদিন। এর আগে আমার তিন কন্যা ভূমিষ্ঠ হয়েছে। তাদের নিয়ে অনেক স্বপ্ন রয়েছে আমাদের। ৩ কন্যার মতোই পদ্মা সেতু আমাদের গর্বের। এজন্য তিন নবজাতক ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর যারাই দেখতে এসেছেন তারাই সন্তানদের নাম স্বপ্নের পদ্মা সেতুর সঙ্গে মিলিয়ে রাখতে পরামর্শ দিয়েছেন। এজন্য তিনজনের নাম রেখেছি স্বপ্ন, পদ্মা ও সেতু।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের একটি বেসরকারি হাসপাতালে এ্যানী-আশ্রাফুল দম্পতির কোলজুড়ে জন্ম নেয় ফুটফুটে ৩ সন্তান। তাদেরও নাম রাখা হয়েছিল স্বপ্ন-পদ্মা-সেতু। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই তিন নবজাতক ও তাদের বাবা-মাকে শুভেচ্ছা উপহার পাঠিয়েছিলেন।