কুমিল্লায় ধর্ষণের পর হত্যা মামলায় দুই আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক রোজিনা খান এ আদেশ দেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার বারপাড়া গ্রামের আবদুর রাজ্জাকের ছেলে মো. রাসেল ও মো. হিরণ মিয়ার ছেলে মো. আরিফ হোসেন।

মামলার অভিযোগ ও আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১২ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার বারপাড়া কবরস্থান থেকে কুমিল্লার মুরাদনগরের মরিয়ম বেগমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে এ ঘটনার তদন্ত শুরু করে কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ। একপর্যায়ে রাসেল ও আরিফকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তারা মরিয়মকে প্রলোভন দেখিয়ে বাড়ি থেকে কুমিল্লায় এনে ধর্ষণের পর পরিকল্পিতভাবে শ্বাসরোধ করে হত্যার বিষয়টি স্বীকার করেন।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট জহিরুল ইসলাম সেলিম ও আইনজীবী মো. নুরুল ইসলাম জানান, মামলাটির তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ। গ্রেপ্তার দুই আসামিও আদালতে দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।

উভয়পক্ষের শুনানি ও সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে বৃহস্পতিবার আদালত ওই দুই আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।