নরওয়ের রাজধানী অসলোর নাইটক্লাব ও নিকটবর্তী একটি সড়কে বন্দুক হামলায় দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ২১ জন।

দেশটির পুলিশ এ তথ্য জানায়। খবর বিবিসির।

পুলিশ এ বন্দুক হামলার ঘটনাকে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড ধরে নিয়ে তদন্ত করছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার রাত ১টার দিকে এ বন্দুক হামলার ঘটনা ঘটে একটি সমকামীদের ক্লাবসহ তিন জায়গায়। ইতোমধ্যে একজন সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং জব্দ করা হয়েছে দুটি অস্ত্র। 

এদিকে বন্দুক হামলার ঘটনায় সমকামীদের বার্ষিক র‌্যালি বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা। শনিবার এ অনুষ্ঠান আয়োজিত হওয়ার কথা ছিল।

নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী জোনাস গর স্তুরে বলেন, ‘এটি নিরপরাধ মানুষের ওপর ভয়ানক এবং গভীরভাবে মর্মান্তিক হামলা।

এনআরকে টেলিভিশনের সাংবাদিক ওলাভ রোয়েনবার্গ বলেন, আমি এক ব্যক্তিকে দেখেছি একটি ব্যাগ নিয়ে আসতে। পরে সে বন্দুক থেকে গুলি করতে শুরু করে।

লন্ডন পাবের (জনপ্রিয় সমকামী বার) এক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, যে বারে এ ঘটনা ঘটেছে সেখানকার বাইরের দিকের অংশে আমি ছিলাম। আমি দেখলাম একটি গুলি ছোড়া হয়েছে এবং আমি একটি কাঁচের টুকরা দ্বারা আঘাতপ্রাপ্ত হলাম। এর পর লাগাতার গুলি চলতে লাগল। আমরা দ্রুত বারের আরও ভেতরে অংশে চলে যাই।

‘প্রথমে মানুষ বুঝতেই পারেনি কী ঘটছে। এর পর ঘটনাস্থলে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে’, যোগ করেন ওই প্রত্যক্ষদর্শী।

নরওয়ের বিচারমন্ত্রী এমিলি এঞ্জার মেহল বলেন, এ দুর্ঘটনা দেশকে বিক্ষুব্ধ করেছে।