পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে মাদারীপুরের শিবচরের বাংলাবাজার ঘাটে প্রধানমন্ত্রীর সম্মেলন উপলক্ষে তৈরি করা মঞ্চে ৬ দিনব্যাপী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। 

শনিবার সন্ধ্যায় শুরু হওয়া সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রথম দিন সঙ্গীত পরিবেশন করেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ, খুরশিদ আলম, প্রতীক হাসান, খাইরুল আনাম শাকিল ও প্রিয়াংকা গোপ। এ ছাড়াও ছিল বর্ণাঢ্য লেজার শো ও আতশবাজি ফোটানো। এর আগে সম্মেলনে অংশ নেওয়া হাজারো মানুষ দেশের খ্যাতিমান শিল্পীদের গান শোনার জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন।

এ ছাড়া মাদারীপুর, শরীয়তপুর, ফরিদপুর ও গোপালগঞ্জ থেকে হাজারো মানুষকে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে দেখা যায়। রাত সাড়ে ৮টার দিকে সঙ্গীতানুষ্ঠান শুরু হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চিফ হুইপ নুর ই আলম চৌধুরী লিটন, ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান নিক্সন চৌধুরী, মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন। শিল্পীরা প্রথমে পদ্মা নদী ও পদ্মা সেতুকে নিয়ে গান পরিবেশন করেন। পরে দর্শকদের অনুরোধের গান পরিবেশন করা হয়। 

মোনালিসা মৌয়ের উপস্থাপনায় শিল্পীরা প্রথমে মঞ্চে উঠে পদ্মা সেতু তৈরি করে দেওয়ায় ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। পরে কণ্ঠশিল্পী খায়রুল আনাম ও প্রিয়াংকা গোপ দ্বৈত কণ্ঠে পদ্মার ঢেউ রে গানটি পরিবেশন করেন। এরপর ‘মানবতার জননী তুমি, তুমি যে বিস্ময়, বার বার তোমাকেই যুদ্ধে যেতে হয়’ গানে সমবেত নৃত্য পরিবেশন করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির  নৃত্য শিল্পীরা।

এরপর একুশে পদকপ্রাপ্ত সঙ্গীত শিল্পী খুরশিদ আলম গান পরিবেশন করেন। পরে মুক্তা সরকার ও কাজল সরকার গান পরিবেশন করেন। সর্বশেষ দর্শকদের মাতিয়ে তোলেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ।

রোববার সঙ্গীত পরিবেশন করবেন কনা, ইমরান ও ব্যান্ড দল স্পন্দন। এ ছাড়া থাকবে সমবেত নৃত্য ও কোরিওগ্রাফি। সোমবার সঙ্গীত পরিবেশন করবেন শফি মণ্ডল ও রাজিব। এ ছাড়া থাকবে যাত্রা দলের পরিবেশনা, সমবেত নৃত্য ও কোরিওগ্রাফি। মঙ্গলবার সঙ্গীত পরিবেশন করবেন কণ্ঠশিল্পী ঐশী, এরপর   থাকবে নাট্য দলের পরিবেশনা, সমবেত নৃত্য ও কোরিওগ্রাফি।

বুধবার মেহরিন, সজিব ও বাউল শিল্পীদের গান পরিবেশনা ও এক্রোবেট প্রদর্শনী থাকবে। বৃহস্পতিবার স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পীরা সমবেত নৃত্য পরিবেশন করবেন।

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক ড রহিমা খাতুন বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন উপলক্ষে ৬ দিনব্যাপী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে। আজ প্রথম দিন মানুষ বেশ উপভোগ করেছে। বাকি ৫ দিনও অনেক সুন্দর আয়োজন আছে।