কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে মুদি দোকানি এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে দূর্বৃত্তরা। শনিবার মধ্যরাতে উপজেলার বলদিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ওই যুবকের নাম আলতাফ হোসেন ফিরোজ (১৮)। তিনি ভূরুঙ্গামারী উপজেলার বলদিয়া ইউনিয়নের রাঙ্গালীর কুটি গ্রামের মৃত মল্লুক চানের ছেলে ।

নিহতের পরিবার জানায়, রাঙালীর কুটির আবুল মোড়ে গলামালের ব্যবসা করতেন ফিরোজ। শনিবার রাত ১২টার দিকে দোকান বন্ধ করে মোটরসাইকেল করে বাড়ি ফিরছিলেন ফিরোজ। পথে জোনাব আলীর বাঁশ বাগানের কাছে আসলে দুর্বৃত্তরা তার মোটরসাইকেল থামিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথায় আঘাত করে। এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। পরে সড়কের কিনারা থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় ফিরোজকে উদ্ধার করে বাড়িতে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

কচাকাটা থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে রোববার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠিয়েছে।

প্রতিবেশী জুলমাত আলী ও রফিকুল ইসলাম জানান, রাতে মানুষের কথাবার্তা  শুনে দৌড়ে গিয়ে ফিরোজকে পড়ে থাকতে দেখেন তারা। ফিরোজের মাথায় ধারালো অস্ত্রের একাধিক আঘাত দেখতে পেয়েছেন তারা।

ফিরোজের বড় ভাই সাদ্দাম হোসেনের স্ত্রী জেসমিন আক্তার বলেন, ফিরোজ সহজ সরল ছেলে। প্রতিদিন তার বন্ধুরা তাকে ডেকে নিতো। অনেক রাত পর্যন্ত বাইরে আড্ডা দিত। এ নিয়ে তার বড় ভাই রাগারাগিও করতো। তাকে যারা খুন করেছে তাদের বিচার দাবি করেন তিনি।

কচাকাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহেদুল ইসলাম জানান, খুনের প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটন ও দোষীদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ মাঠে কাজ করে যাচ্ছে।