পদ্মা সেতু উদ্বোধনে বর্ণাঢ্য আয়োজনের বড় কৃতিত্ব সরকার একাই নিতে যাচ্ছে বলে উল্লেখ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, আওয়ামী লীগ সরকারের ভাব দেখে মনে হয় তাদের পৈতৃক সম্পত্তি বিক্রি করে সেতু করেছে। অথচ সেতু হয়েছে জনগণের টাকায়।

সরকার পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী আয়োজনে বিপুল পরিমাণ অর্থ খরচ না করে সারাদেশের বন্যার্তদের জন্য খরচ করতে পারত বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

রোববার জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের উদ্যোগে সিলেট নগরীর চাঁদনীঘাটসহ বিভিন্ন এলাকায় ত্রাণ বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। 

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারের সমালোচনায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার নয়। সেজন্য জনগণের জন্য কোনো দায়বদ্ধতা নেই। পদ্মা সেতু নিয়ে বেশি কথা বলছে। সেতু উদ্বোধনে এতো টাকা খরচ না করে সিলেটের বন্যার্তদের তারা দিতে পারত, সেটি করেনি। 

গয়েশ্বর রায় বলেন, ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার কী করল, সেটা আমাদের বিবেচনার বিষয় নয়। আমাদের ভাবনার বিষয় হচ্ছে জনগণের দল হিসেবে বিএনপি অসহায় মানুষের জন্য আমরা কী করতে পারলাম। আওয়ামী লীগ সরকার কখনো মানুষের জন্য নয়। 

আগামী জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে গয়েশ্বর বলেন, শেখ হাসিনা সরকারকে ক্ষমতায় রেখে দেশে গণতন্ত্রে বিশ্বাসী রাজনৈতিক দলগুলো নির্বাচনে যাবে না। এই সরকারের অধীনে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না এটা আমরা নিশ্চিত। কোনোদিন যদি সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য ভোট হয়, যদি জনগণ ভোট দিতে পারে তখন নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে।

জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের সিলেট মহানগরীর আহ্বায়ক আব্দুল ওয়াহিদ সুহেলের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব আজিজুল হোসেন আজিজের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল, সিনিয়র সহ-সভাপতি গোলাম সারোয়ার, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন আলী, ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি ফখরুল ইসলাম রবিন, মহানগরের নেতা রেজওয়ানুল হক রিয়াজ, এস এম জিলানী, সিলেট স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা সাইফুল ইসলামসহ আরও অনেকে। 

এর আগে রোববার সকালে ঢাকা থেকে ত্রাণ নিয়ে আসেন দলের নেতারা।