স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, এবারের বন্যায় না খেয়ে এবং বিনা চিকিৎসায় একটি মানুষও মারা যাননি। এছাড়া বন্যা পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায়ও স্বাস্থ্যবিভাগ প্রস্তুতি রয়েছে।

সোমবার দুপুরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের সম্মেলন কক্ষে সিলেট বিভাগের বন্যা পরিস্থিতি, ত্রাণ ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এমন কথা বলেন তিনি। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে সিলেটে ১৪০টিরও বেশি মেডিকেল টিম কাজ করছে। এছাড়া আরও দুই হাজারের বেশি কর্মী প্রস্তুত রয়েছেন।

বন্যা কবলিত এলাকায় কমিউনিটি ক্লিনিক, স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও হাসপাতালে সৃষ্ট সমস্যা নিরসনে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে বলেও জানান মন্ত্রী।

সাম্প্রতিক সময়ের বন্যায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পানি ওঠা ও চিকিৎসা সেবা বিঘ্নিত হওয়া প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ভবিষ্যতে এমন জলাবদ্ধতা ঠেকাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

মতবিনিময় সভা শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সিলেটে কর্মরত সেনাবাহিনীর দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের কাছে আরও কিছু ত্রাণসামগ্রী দুর্গম এলাকায় পৌঁছে দিতে হস্তান্তর করেন। এরপর স্বাস্থ্যমন্ত্রী সিলেটে হজরত শাহজালাল (রা.)-এর মাজার জিয়ারত করেন।

বন্যাকবলিত মানুষের কল্যাণের জন্য করণীয় বিষয়ে মতবিনিময় সভায় স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ এইচ এম এনায়েত হোসেন, বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল এসোশিয়েশনের সভাপতি মুবিন খান, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন খানসহ সিলেট জেলা প্রশাসন ও জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন।