ত্রাণ নিয়ে বন্যায় দুর্গতদের বিতরণ করতে যাওয়ার সময় ট্রলারডুবির (ইঞ্জিন চালিত কাঠের নৌকা) ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার সকালের দিকে কলমাকান্দা উপজেলার সদর ইউনিয়নের নোয়াগাঁও নামক এলাকায় সোনাডুবি হাওরে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯-এ কল পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে কলমাকান্দা থানা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের দল। এর আগেই টাঙ্গাইল থেকে ত্রাণ নিয়ে আসা ১২ জন ব্যবসায়ী স্থানীয়দের সহায়তায় রক্ষা পেয়েছেন। এ ঘটনায় হতাহতের কোনো ঘটনা না ঘটলেও অধিকাংশ ত্রাণের প্যাকেট ভিজে নষ্ট হয়েছে।

ত্রাণ সহায়তাকারীদের একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হালিম জানান, ত্রাণ নিয়ে সুনামগঞ্জের উত্তর বংশীকুন্ডা ইউনিয়নের মহেষখলার বাগলি এলাকার বন্যার্তদের মধ্যে বিতরণের জন্য যাত্রা শুরু করি। পথে নোয়াগাঁও এলাকার সোনাডুবি হাওরে আমাদের ট্রলারটি ডুবন্ত একটি পিলারের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ট্রলারের তলদেশের কাঠ ছিদ্র হয়ে পানি ঢুকে ডুবে যেতে থাকে। ট্রলারের নিচে বেশিরভাগ ত্রাণের প্যাকেট ছিল। কিছু সংখ্যক প্যাকেট নিয়ে আমরা উপরে বসে ছিলাম।

তিনি আরও বলেন, ওই সময় আশপাশে কয়েকটি ছোট ছোট নৌকা উদ্ধারে এগিয়ে এসে আমাদের রক্ষা করে। ৯৯৯-এ ফোন দিলে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ত্রাণসহ ট্রলারাটিকে উদ্ধার করে। ত্রাণের প্যাকেটগুলোর চারভাগের তিনভাগ ভিজে গেছে। উদ্ধারের পরে যেগুলো ভাল ছিল তা ওই এলাকার দুর্গতদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে।

কলমাকান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আবদুল আহাদ খান সমকালকে জানান, ৯৯৯-এ কল পেয়ে হাওর থেকে লোকজনসহ ত্রাণের মালামাল উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে আসা হয়েছে। এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।