বরিশালের গৌরনদীতে ডাকাতদলের সাথে পুলিশের 'গোলাগুলির' ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ এ সময় ঘটনাস্থল থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, গোলাবারুদ ও দেশীয় অস্ত্রসহ চার ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে।

গতকাল রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। আজ সোমবার সমকালকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন। 

গৌরনদী মডেল থানা সূত্রে জানা গেছে, রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ১০-১২ জনের একটি সশস্ত্র ডাকাতদল উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ভূরঘাটা এলাকার পান বরজের ভেতরে বসে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল।

আরও জানা গেছে, গোপন সূত্রে এ খবর জানতে পেরে গৌরনদী মডেল থানার ওসি মো. আফজাল হোসেনের নেতৃত্বে থানা পুলিশের একটি চৌকস দল সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশ বরজটিকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলে। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতদল এ সময় গুলি ছুঁড়ে পুলিশের সাথে গোলাগুলিতে লিপ্ত হয়। পুলিশ পাল্টা গুলি ছুঁড়তে বাধ্য হয়। 

থানা সূত্রে জানা গেছে, গোলাগুলির মধ্যে ডাকাতদলের অধিকাংশ সদস্য পালিয়ে গেলেও পুলিশ সেখান থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, গোলাবারুদ ও বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্রসহ চার ডাকাতকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। ডাকাতদের কাছ থেকে পুলিশ এ সময় পাঁচ রাউন্ড গুলিভর্তি একটি পাইপগান, রামদা, চাইনিজ কুড়াল, রেঞ্চ, ঘরভাঙ্গা ও জানালার গ্রিল কাটার সরঞ্জামাদি, হাত-পা বাঁধার গামছা উদ্ধার করে।

ওসি মো. আফজাল হোসেন জানান, বন্দুকযুদ্ধের সময় পুলিশ ১০ রাউন্ড গুলি ছুঁড়েছে। গ্রেপ্তারকৃত ডাকাতদের বিরুদ্ধে বরিশাল ভোলা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, বরগুনা জেলার বিভিন্ন থানায় অসংখ্য ডাকাতির মামলা বিচারাধীন রয়েছে। 

এ ঘটনার বিস্তারিত জানাতে আজ সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বরিশাল জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে জেলা পুলিশের উদ্যোগে একটি সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।