মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার সাড়ে বিশরশী গ্রামের হাসি আক্তার (২১) নামের সোমবার বিকেলে জাজিরা প্রান্তের পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানা-সংলগ্ন ফায়ার সার্ভিসের পাশে এক ছেলেসন্তান জন্ম দিয়েছেন। ওই প্রসূতিকে চিকিৎসার জন্য শিবচরের গ্রামের বাড়ি থেকে গাড়িযোগে পদ্মা সেতু দিয়ে ঢাকার উদ্দেশে যাচ্ছিল পরিবারের সদস্যরা।

কিন্তুু পথিমধ্যে অন্তঃসত্ত্বা হাসি আক্তারের প্রসবব্যাথা বেড়ে গেলে জাজিরা প্রান্তের পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানা-সংলগ্ন ফায়ার সার্ভিসের পাশে অবস্থান নেয় পরিবারের সদস্যরা। এ সময় ওই স্থানেই হাসি আক্তার ছেলেসন্তান জন্ম দেওয়ায় তাকে আর উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নিতে হয়নি।

বিষয়টি জানতে পেরে পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রসূতি ও নবজাতক পুত্রসন্তানকে থানার গাড়িযোগে শিবচর উপজেলার সাড়ে বিশরশী গ্রামের বাড়িতে নিরাপদে পৌঁছে দেওয়া হয় বলে জানা গেছে।

পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান জানান, গ্রামের বাড়ি থেকে স্বামী হাসান মিয়াসহ পরিবারের সদস্যরা হাসি আক্তারকে ঢাকায় নিয়ে যাচ্ছিল। পথিমধ্যে জাজিরা প্রান্তের পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানা এলাকায় পৌঁছলে হাসি আক্তারের প্রসববেদনা বেড়ে যায়। একপর্যায়ে সেখানেই তিনি একটি পুত্রসন্তান জন্ম দেন। পরে তাদের পুলিশ হেফাজতে বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হয়।