চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার জঙ্গল সলিমপুরের দুর্গম পাহাড়ে গড়ে ওঠা আলীনগরে অভিযান শুরু হয়েছে। সেখানে সন্ত্রাসীদের অভয়ারণ্য গড়ে তোলা মোহাম্মদ ইয়াসিন গ্রেপ্তার হওয়ার পর এবার তাঁর 'রাজ্যে' আঘাত হেনেছে প্রশাসন।

আজ শুক্রবার প্রথম দিনে ঘটনাস্থল থেকে পাহাড় কাটার কাজে ব্যবহৃত দুটি স্কেভেটর ও তিনটি ড্রাম ট্রাক জব্দ করা হয়। এর আগে এক ইউপি সদস্যকে মারধরের ঘটনায় ইয়াসিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

সলিমপুরে প্রায় ৩ হাজার ১০০ একর জায়গায় ইয়াসিন ও তাঁর সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে তুলেছে আলীনগর নামে স্বঘোষিত গ্রাম। সেখানে সরকারি জমিতে প্লট তৈরি করে তা বিক্রির মাধ্যমে তাঁরা কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। সেখানে ইয়াছিন বড় রাজা হিসেবে পরিচিত। তবে ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়ে গেছে ছোট রাজাখ্যাত মোহাম্মদ ফারুক।

পাহাড় কাটার কাজে ব্যবহৃত দুটি স্কেভেটর ও তিনটি ড্রাম ট্রাক জব্দ করা হয়েছে। 

আজ সেখানে চলা অভিযানে নেতৃত্ব দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুল আলম ও আবদুল্লাহ আল মামুন। উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল করিম, পরিবেশ অধিদপ্তরের উপপরিচালক ফেরদৌস আনোয়ার, সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ ও র‌্যাব ৭-এর সহকারী পরিচালক জিন্নাতুল ইসলাম।

আশরাফুল আলম বলেন, স্থানীয় মেম্বারকে মারধরের অভিযোগে গত সোমবার ইয়াসিনকে গ্রেপ্তার করে রিমান্ডে নেওয়া হয়। তাঁর কাছ থেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বেরিয়ে এসেছে। এর ভিত্তিতেই অভিযান চলছে। তিনি জানান, কয়েক বছর আগে নোয়াখালীর সুবর্ণচর থেকে সলিমপুর এসে ঘাঁটি গাড়েন ইয়াসিন। এরপর ধীরে ধীরে গড়ে তোলেন নিজ সাম্রাজ্য ও সন্ত্রাসী বাহিনী।