লক্ষ্মীপুরে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আলতাফ হোসেনকে (ঘোড়া) মারধরের অভিযোগ উঠেছে নৌকার সমর্থকদের বিরুদ্ধে। বুধবার সকাল ৮টার দিকে সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়নের উত্তর দূর্গাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। হামলাকারীদের আঘাতে আলতাফ হোসেনের নাক-ঠোট ফেটে যায়। তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে রাজাপুর মুসলিম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের কাছে সকাল ৯টার দিকে ৫-৬টি ককটেল বিস্ফোরণ করেছে দুর্বৃত্তরা।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়ন স্বতন্ত্র প্রার্থী আলতাফ হোসেন অভিযোগ করে জানান, কেন্দ্র পরিদর্শনে গেলে নৌকার প্রার্থী জাবেদের ভাই জসিম ও সজিবসহ তাদের লোকজন হামলা করে। তার নাখ মুখ ফাটিয়ে দেয়। অকথ্য ভাষায় তাকে আওয়ামী লীগের লোকজন গালামন্দ করেছে। তার মোবাইল নিয়ে গেছে। প্রশাসনকে বললেও তারা কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। আওয়ামী লীগের বহিরাগতরা কেন্দ্রে কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছে।

তবে নৌকার প্রার্থী সালাউদ্দিন চৌধুরী জাবেদ বিষয়টি অস্বীকার করে জানান, সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণ চলছে। পরস্থিতি ঘোলাটে করতে আলতাফ ভুয়া অভিযোগ করছে। তার ওপর কোনো হামলা করা হয়নি।এছাড়া নির্বাচনকে ঘিরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জয়নাল আবেদীন বলেন, আলতাফের শরীরে জখমের চিহ্ন রয়েছে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি দেওয়া হয়েছে।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ওসি মোসলেহ উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল মোবাইল টিম পাঠিয়েছি। কে বা কারা ঘটনা ঘটিয়েছে তা শনাক্ত করা যায়নি। হামলার ঘটনায় নির্দিষ্ট কোনো অভিযোগও নেই। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে আমরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছি।


 বুধবার সকাল ৮ টা থেকে  জেলার তিনটি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ শুরু চলছে । শেষ হবে বিকাল ৪ টায়। প্রতিদ্বন্দ্বীতায় রয়েছেন রামগতি উপজেলার বড়খেরী ও বিচ্ছিন্ন দ্বীপ চর আবদুল্লাহ ইউনিয়ন এবং সদর উপজেলার দিঘলী ইউনিয়ন পরিষদের উপ-নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে মোট ৬ জন এবং সদস্য ও সংরক্ষিত সদস্য পদে ৭৮ জন প্রার্থী ।  চরাঞ্চলে এ প্রথমবারের মতো ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহন চলছে। তিনটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রার্থীসহ দুইজন করে প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।