তিন মাস বন্ধ থাকার পর পার্বতীপুরের বড়পুকুরিয়া খনি থেকে পরীক্ষামূলকভাবে কয়লা উত্তোলন শুরু হয়েছে। নতুন ১৩০৬ নম্বর ফেইস থেকে এই উৎপাদন শুরু করা হয়। বুধবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান ঢাকা থেকে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে কয়লা উৎপাদন কাজের উদ্বোধন করেন।

বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানি লিমিটেডের নবনিযুক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাইফুল ইসলাম জানান, খনি ভূ-গর্ভে ১৩১০ নম্বর কোল ফেইসে মজুত শেষ হওয়ায় ২৭ এপ্রিল থেকে কয়লা উত্তোলন বন্ধ ছিল। এরপর ১৩১০ নম্বর ফেইসে ব্যবহৃত উৎপাদন যন্ত্রপাতি সরিয়ে ১৩০৬ নম্বর ফেইসে প্রতিস্থাপন করা হয়। সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান ঢাকা থেকে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত হয়ে নতুন ফেইসের কয়লা উত্তোলন কাজের উদ্ধোধন করেন। 

তিনি জানান, প্রথম দিকে প্রতিদিন ১ হাজার থেকে ১ হাজার ২ শ’ মেট্রিক টন কয়লা উত্তোলন হবে। ১০ থেকে ১৫ দিন পর পূর্ণমাত্রায় উৎপাদন শুরু হবে। বর্তমানে খনি ইয়ার্ডে প্রায় ৪০ হাজার টন কয়লা মজুত রয়েছে। আশা করি পুরোদমে কয়লা উত্তোলন শুরু হলে তাপ বিদ্যুৎ চালাতে কোনো সমস্যা হবে না।